HealthMen

ত্বকে ছত্রাক সংক্রমণের কারণে যে গোল গোল ছোপ পড়ে ও চুলকায়, তাকে সাধারণত দাদ বা রিংওয়ার্ম বলা হয়। আজকে আমরা জানবো দাদ কেনো হয় এবং এর প্রতিরোধে আমরা কি করতে পার?

দাদ বা রিং ওয়ার্ম একটি খুবই পরিচিত সমস্যা। দাদ হলে ত্বকে জ্বালা করা, ত্বক ফেটে যাওয়া এবং ত্বকে চুলকানি হয়ে থাকে। মাথার ত্বক থেকে শুরু করে পিঠ, হাত, পা, কুঁচকি, বগল ও শরীরের নানা ভাঁজে প্রথমে লালচে গোল গোল বা ডিম্বাকৃতির ছোপ দেখা দেয়। যেকোনো বয়সের যেকোনো মানুষ এতে আক্রান্ত হতে পারে।

এখন আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে দাদ কেনো হয়? আসুন জেনে নেওয়া যাক-

টিনিয়া ইনফেকশন বা দাদ মূলত ছত্রাক সংক্রমণের কারণেই হয়ে থাকে। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বাস করা, আর্দ্র স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া, অতিরিক্ত ঘাম ইত্যাদি এই সমস্যার ঝুঁকি বাড়ায়। এটি খুবই ছোঁয়াচে সাবধানতা অবলম্বন না করলে এটি পরিবারে অন্য সদস্যদের মদ্ধেও ছড়াতে পারে।

দাদের প্রতিকারঃ

◾পরিচ্ছন্ন থাকার চেষ্টা করুন। অতিরিক্ত ঘেমে গেলে জামাকাপড় পাল্টে ফেলুন ও পুরোনো জামা না ধুয়ে আর পরবেন না।

◾নারকেলের তেল ব্যবহারে আরামবোধ হবে। সব সময় সুতির কাপড় পরতে হবে।

■ শরীর ও বিভিন্ন ভাঁজ শুষ্ক রাখার চেষ্টা করুন। অনেকের বগল, কুঁচকি ও ভাঁজগুলো বেশি ঘেমে সব সময় ভিজে থাকে। তারা ডিওডরেন্ট, ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করতে পারেন।

■ পরিবারে কারও হলে তাকে একটু আলাদা রেখে, বিশেষ করে শিশুদের থেকে আলাদা রেখে চিকিৎসা দিন।

■ গরম, বর্ষা ও স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়ায় প্রতিদিন গোসল করুন। পরিষ্কার–পরিচ্ছন্ন থাকুন।

◾দাদ হলে নানা ধরনের ছত্রাকবিরোধী মলম ও ওষুধ ব্যবহার করা যায়। তবে অবশ্যই তা চিকিৎসকের পরামর্শে গ্রহণ করতে হবে। অন্যথায় না বুঝে যেকোনো মলম ব্যবহারে আপনি না বুঝেই নিজের ত্বকের হ্মতি করে ফেলতে পারেন। স্বাস্থ্যগত যেকোন সমস্যাকে অবহেলা না করে একজন রেজিস্টার্ড এমবিবিএস চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। লকডাউনে ঘরে বসে ডাক্তার দেখাতে এপয়েন্টমেন্ট নিন হেলথমেন এ। বিস্তারিত জানতে ইনবক্স করুন m.me/healthmen.services অথবা ডায়েল করুন 01311040092 নম্বরে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
X